অর্জুনের গড় তছনছ, ভাটপাড়া ফের তৃণমূলের কব্জায়

নিজস্ব প্রতিনিধি: ব্যারাকপুরে শেষ কথা বলতেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। এবার তিনি নিজেই তাঁর গড়ে প্রশ্নের মুখে পড়লেন। তাঁর লোকসভার সাতটি বিধানসভার মধ্যে ভাটপাড়া ও জগদ্দল ছাড়া বাকি পাঁচটি কেন্দ্রই তাঁর হাতছাড়া হয়ে গিয়েছে। তাঁর নিকট আত্মীয় সুনীল সিংও নোয়াপাড়া কেন্দ্রে রাত পর্যন্ত পিছিয়ে ছিলেন। এমনকি, বীজপুরে মুকুল রায়ের ছেলে শুভ্রাংশু রায়কে জেতানোর দায়িত্ব নিয়ে ডাহা ফেল করলেন ব্যারাকপুরের বেতাজ বাদশা। আর তার ফলে ব্যারাকপুরে তাঁর প্রভাব নিয়ে এবার বড় ধরনের প্রশ্ন উঠে গেল। যদিও এদিন সন্ধ্যায় অর্জুন সিং বলেছেন, ফলাফল নিয়ে আমরা বিশ্লেষণ করব। এখনই চূড়ান্ত কথা বলার মতো সময় হয়নি।

২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের মুখে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়ে ব্যারাকপুর কেন্দ্র থেকে প্রার্থী হয়ে লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে জয়ী হন। এবার ব্যারাকপুরের সাতটি কেন্দ্রেই জয়ের ব্যাপারে আশবাদী ছিলেন অর্জুন সিং। ভোটের দিন তিনি সেকথা জানিয়েছিলেন। কিন্তু ফল ঘোষণা হতেই দেখা গেল ব্যারাকপুর, আমডাঙা, নৈহাটি ও বীজপুরে তৃণমূল জয়ী হয়েছে। নোয়াপাড়া কেন্দ্রে রাত পর্যন্ত অর্জুনের ঘনিষ্ঠ আত্মীয় সুনীল সিং অনেক ভোটে পিছিয়ে পড়েছেন। শুধুমাত্র তাঁর বাড়ির এলাকা ভাটপাড়া ও জগদ্দল বিজেপি দখলে রাখতে পেরেছে। ব্যারাকপুরে আর অর্জুনের নিয়ন্ত্রণ নেই বলেই তৃণমূল এদিন থেকেই প্রচার শুরু করে দিয়েছে। উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, অর্জুন সিংয়ের গুন্ডামির রাজনীতি ব্যারাকপুরের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে। এই ভোটে সেটাই প্রমাণ হল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *